ফ্রিল্যান্সিং করে বাড়িতে বসে বড়লোক কিভাবে হওয়া যাবে? গাইড লাইন সবার পড়া উচিত

ফ্রিল্যান্সিং করে বাড়িতে বসে বড়লোক কিভাবে হওয়া যাবে? গাইড লাইন সবার পড়া উচিত

ফ্রিল্যান্সিং করে বাড়িতে বসে বড়লোককিভাবে হওয়া যাবে? (সহিহ শুদ্ধপথ কোন ভেজাল নাই)।

জ্বি ভাই হওয়া যাবে, তারআগে আপনাকে কয়েকটা প্রশ্নকরি?

আপনি অনার্স+ মাস্টার্স পাশকরতে কত দিন টাইম নিয়েছেন?যদি ৬ বছরহয়ে থাকে মনে রাখুন।আপনি অনার্স+ মাস্টার্স পাশনা। ছোট বেলায় কারিগরি কাজ শিখেছেন? কত বছর টাইমলেগেছে? ৪ থেকে ৫ বছর।

মনে রাখুন। এখন আপনার আয় কত আরপ্রথমে কত ছিল? এখন ২০হাজার।
প্রথমে ভার্সিটিরপিছনে শুধুটাকা ঢালছি অথবা ওস্তাদেরকাছে ফ্রি কাজ শিখছি, আরকা জ করছি। ওকে তাহলে আপনি যদি বাড়িতে বসে বড়লোকহতে চান তাহলে আপনার আইটি ও টেকনিক্যালবিষয়ে প্রচুর আগ্রহ থাকতে হবে। প্রচুর ধৈর্যথাকতে হবে। মেধা হাল্কা ভালো হতে হবে।

প্রচুরনেটে সার্চ দিনযেই বিষয়ে আয়করবেন সেইবিষয়ে যতবাংলা ইংরেজী আর্টিকেলআছে পড়ুন।এরপর একটা সাবজেক্ট ফিক্স করুনযা আপনার ভালো লাগে আর আপনি পারবেন। এই সম্পর্কিত যত ট্রেনিং আছে তা করে ফেলুন। ট্রেনিং করার আগে ঐ বিষয়ে বাংলা ইংরেজী ভিডিও টিউটোরিয়াল টেক্সট টিউটোরিয়াল পড়ুন। এরপর ট্রেনিং এ ভর্তি হয়ে যান। এরপর রিয়েলটাইম কিছু প্রজেক্ট বানান। এরপর কোন কোম্পানি বা সিনিয়র ফ্রিল্যান্সার এর হাত-পা ধরুন যাতে আপনাকে তার আন্ডারে বিনা বেতনে ১বছর ইন্টার্নি করার সুযোগ দেয়। আপনি নিজের টাকা খরচ করে তার অফিসে যাবেন আসবেন বিনিময়ে মাস শেষে এক টাকাও পাবেননা এই নিয়তে কাজ শুরুকরুন।

(এই সময় হাংকি বাংকি চলবে না। মানে বেতন দেয়না তোই দেরি করে অফিসে আসবেন। কাজ ঠিক ঠিকঠাক মত করবেন না, ক্লাইন্ট নিয়া ভাগবেন এইগুলা করবেন না। ) তার ইনস্ট্রাকশনে কাজ করুন, কাজ বুঝুন। ইংরেজীতে দক্ষহতে সাইফুরস বা এফএমমেথডে যত স্পোকেন রিলেটেড বেসিকএডভান্সড কোর্স আছে সবগুলা করুন।এরপর পার্সপোর্ট, ব্যাংকস্টেটমেন্ট সবরেডি রাখুন। স্কিল, পেওনিয়ার এর একাউন্ট খুলে ফেলুন। এইবার ১ বছর পার হইলে ইন্টার্নি শেষ হইলে বাসায় হাই স্পিড ইন্টারনেট এর লাইন নিন। ওডেস্ক ,ইল্যান্স, ফ্রীল্যান্সার এর যত পরীক্ষা আছে এই রিলেটেড ব্লগগুলা যত আছে সবগুলা ঘাটুন।

পরীক্ষা দেওয়ার জন্য থিউরি সব আয়ত্তে আনুন। এবার একযোগে ওডেস্ক,ইল্যান্স,পিপল পার আওয়ার, ফ্রিল্যান্সার এর একাউন্ট খুলুন। সব গুলার আইডি ভেরিফাই করুন,পরীক্ষা দিয়ে ১০০% প্রফাইল কমপ্লিট করুন। এর পর বিডকরুন। ৩ সপ্তাহটানা বিড করুন। একটা না একটা কাজ পাবেন ই। প্রথম কাজ খুব মনোযোগ দিয়ে করুন। ভালো ফিডব্যাক নিন।

এর পর ১ বছর লোয়ার অথবা মিডলেভেলের কাজ করুন। এরপরের বছর হাইলেভেলের কাজকরুন। পরের বছর থেকে আপনার নূণ্যতম আয় ৩ হাজার ডলার হবে। টোটাল টাইম লাগবে আড়াই বছর।
দুনিয়াতে কোন জব নাই যেখানে ইনিশিয়াল বেতন ১০হাজারটাকা হলে আড়াই বছরপরে বেতন আড়াই লাখ টাকা হবে। ১বছর কাজ করুন। দেখবেন ব্যাংক-ব্যালেন্স ৩০থেকে ৪০ লাখটাকা হয়েছে। এই মেথডকেউ এপ্লাই করার পরে যদি টাকা কামাতে না পারেন তাহলে আমি তার একাউন্টে ৪০লাখটাকা দিয়ে দিবো। তবে শর্তএকটাই আমারপুরা মেথড১০০%মেনে চলতে হবে। সব শর্ত সহ।
====================
লেখায়ঃ Hridoy Khandakar

Post a Comment

0 Comments