What is Freelancer.com ID Verification ! ফ্রিল্যান্সার.কম এ আইডি ভেরিফিকেশন করবেন কিভাবে ?

ফ্রিল্যান্সার.কম এ আইডি ভেরিফিকেশন এর নিয়মাবলীঃ

ফ্রিল্যান্সার.কম এ আইডি ভেরিফিকেশন করে তিনটি ধাপে, ধাপ গুলো নিম্নে দেওয়া হইলো।
১। Proof of Identity
২। Key code Verification
৩। Proof of Address

ভেরিফিকেশন করতে কি কি লাগবে?

১। জাতীয় পরিচয় পত্র/ড্রাইভিং লাইসেন্স/পাসপোর্ট
২। শেষ তিন মাসের ব্যংক স্টেটেমেন্ট/ ইউটিলিটি বিল কপি (বিদ্যুৎ, পানির বা টেলিফোন)

ভেরিফিকেশন এর পক্রিয়া সমূহ:

১। Proof of Identity: এটি ভেরিফিকেশন এর প্রথম ধাপ। এই ধাপে নিম্নের ছবির স্ক্রিনের মত একটি পেইজ আসবে, সেখানে প্রথমে আপনার নামের প্রথম অংশ দিবেন এরপর নামের শেষ অংশ দিবেন। এরপর জন্ম তারিখ সিলেক্ট করে, আপনার ন্যাশনাল আইডি/ড্রাইভিং লাইসেন্স/পাসপোর্ট এর স্ক্যান কপি আপলোড দিন (স্ক্যান করার সময় খেয়াল রাখবেন ডকুমেন্টের চারপাশ যেন ঠিক ভাবে বোঝা যায়, কোন অংশ যেন না কাটে, চার কোনা না বোঝা গেলে সেটি দিয়ে ভেরিফিকেশন নাও হতে পারে, সাবধান)। এরপর আপনার জাতীয়তা সিলেক্ট করেদিন, আইডি টাইপ এর ঘর থেকে সিলেক্ট করেদিন কোন টাইপের ডকুমেন্ট আপনি আপলোড দিবেন এরপর আইডি নাম্বার দিয়ে আইডির মেয়াদ উর্ত্তীণের তারিখ দিয়ে দিবেন (ন্যাশনাল আইডি কার্ডের ক্ষেত্রে লাগবে না)। এরপর Save and Continue বাটনে ক্লিক করে পরের ধাপে যান।


২। Key code Verification:
এটি হলো দ্বিতীয় ধাপ। এই ধাপে নিম্নে দেওয়া ছবির মত একটি স্ক্রিণ আসবে, সেখানে দেখবেন একটি ইউনিক কোড লেখা আছে এবং পাশে Print লেখা একটি বাটন আছে সেটি চাইলে প্রিন্ট করতে পারেন অথবা একটি কাগজে লিখবেন। তারপর সেই কি-কোড লেখা বা প্রিন্ট করা কাগজ এক হাতে নিবেন এবং অন্য হাতে আপনার যে আইডি কার্ড বা পাসপোর্ট প্রথম ধাপে আপলোড দিছেন সেটার ফ্রন্ট পার্ট ধরবেন। এরপর দুই হাত কাধ বরাবর রেখে একটি ছবি তুলবেন আপনোর চেহারা সহ, ছবিটি এমন ভাবে তুলবেন যেন সবকিছু স্পষ্ট বোঝা যায়। ছবি তোলা হয়ে গেলে সেটি আপলোড দিয়ে দিন (ভুলেও কিছু ইডিট করবেন না।) এরপর Save and Continue বাটনে ক্লিক করে পরের ধাপ অর্থাৎ তৃতীয় ধাপে যান।




৩। Proof of Address:
এই ধাপে প্রথমেই আপনার ঠিকানা লিখুন, ঠিকানা লেখার সময় খেয়াল রাখবেন এখানে যে ডকুমেন্ট আপলোড দিবেন সেটার ঠিকানা আর এখানে দেওয়া ঠিকানা একই হতে হবে নতুবা ভেরিফিকেশন সম্পন্ন হবে না। ঠিকানা দেওয়া হয়ে গেলে আপনার ডকুমেন্টটি আপলোড দিন (স্ক্যান করার সময় খেয়াল রাখবেন ডকুমেন্টের চারপাশ যেন ঠিক ভাবে বোঝা যায়,
কোন অংশ যেন না কাটে, চার কোনা না বোঝা গেলে সেটি দিয়ে ভেরিফিকেশন নাও হতে পারে)। এখানে আপনি ইউটিলিটি বিলের কপি অথবা ব্যাংক স্টেটমেন্ট আপলোড দিতে পারবেন। যে ডকুমেন্টই আপলোড দেন সেটি অবশ্যই আপনার নিজের নামের হতে হবে। ব্যাংক স্টেটমেন্ট আপলোড দিলে সেটি লাস্ট ০৩ (তিন) মাসের হতে হবে, অধিক পুরনো হলে হবে না।


সব ঠিক থাকলে কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই কনফার্মেশন মেইল পেয়ে যাবেন। আর যদি কোন সমস্যা হয় তাহলে ফ্রিল্যান্সারের হেল্প লাইনে যোগাযোগ করবেন।
(কোন ধরণের ইডিট করা বা ভূয়া ডকুমেন্ট সাবমিট করবেন না, আইডি বাতিল হয়ে যেতে পার।)

আরো নতুন নতুন টিপস পেতে সাথেই থাকুন।

Post a Comment

0 Comments