জেনে নিন আল্লাহ কে ? কে সৃষ্টি করেছে এই দুনিয়া ??

 জেনে নিন আল্লাহ কে ? কে সৃষ্টি করেছে এই দুনিয়া ??

আল্লাহ জানে কে কয়দিন বাঁচব, কিন্তু সেটা একদিন হোক, একবছর কিংবা একশ - হাসিমুখে কাটান । 





এ প্রশ্নটি প্রায় সবার মনেই উঠে। কিন্তু উত্তর প্রায় সবারই অজানা। যতদূর আমার অভিজ্ঞতা থেকে জানি- বহু অমুসলিমও এ ধরনের প্রশ্ন মুসলিমদের করে থাকে। কিন্তু উত্তর-অজানা....। তাই না?? আমরা/ মুসলিমরা এ প্রশ্নের উত্তর দিতে সর্বদা ব‍্যার্থ হই। আবার আধুনিক সময়ে কিছু কিছু নাস্তিক ও খৃষ্টান মিশনারি'রা এ ধরনের প্রশ্ন করে মুসলিমদের বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করে, তাদের নিজেদের সুবিধার জন্য। যদিও পাকা ইমানের মুসলিমরা খৃষ্টান ও নাস্তিকদের এ ধরনের "ফিলোসফিক‍্যাল ও সাইকোলজিক‍্যাল" প্রশ্নে বিচলিত হন না। কিন্তু সাধারণ শিক্ষত মুসলিমদের মনে এ ধরনের প্রশ্ন 'দাগ' কেটে যায়।

তখন সেই সাধারণ মুসলিমরা ভাবতে শুরু করে- "ঠিকই তো, আল্লাহ'কে কে সৃষ্টি করেছে?? এবং তারা ধীরে ধীরে ইসলাম থেকে দূরে সরে যায়।

আমি (লেখক, হোসেন কুরানী) নিজেও অমুসলিমদের মাঝে দ্বীন ইসলাম প্রচারের জন্য যাই/ অনেকে আমার বাড়িতে আসে। কিন্তু প্রায় যে প্রশ্নটা তারা করে থাকে, তাহল-"আল্লাহ'কে কে সৃষ্টি করেছে"??
প্রায় 10 দিন আগেও "সেখ জুলফিকার আলি" তার কিছু অমুসলিম বন্ধু-বান্ধব'কে নিয়ে আমার কাছে আসে। সেই অমুসলিমগণ আমাকে অনেক প্রশ্নই করছিল। তার সঙ্গে এ প্রশ্নটাও করেছিল-"আল্লাহ'কে কে সৃষ্টি করেছে"??
এ প্রশ্নের উত্তর সেদিনও দিয়েছিলাম এবং আজও দেব-ইনশাআল্লাহ।

উত্তর:::- প্রথমত, যে সব খৃষ্টান ও নাস্তিক এ ধরনের প্রশ্ন করে তারা নিজেরা নিজেদের খুবই "চালক ও বুদ্ধিজীবী" বলে ভাবে। আর তারা এটা ভেবে খুশি হয় যে, আজ কিছু মুসলিম'কে "সাইজ" করেছি। অর্থাৎ তারা "ফিলোসফিক‍্যাল ও সাইকোলজিক‍্যাল" ভাবে মুসলিমদের বোকা বানায়।
কিন্তু আমার মতে, যারা এ ধরনের সাইকোলজিক‍্যাল প্রশ্ন করে, তারা নিজেরাই খুব একটা সাইকোলজি বোঝেন না।
"কারণ, তার প্রশ্নের মধ্যেই এ প্রশ্নের উত্তর লুকিয়ে আছে"।
কিন্তু কোথায় ও কিভাবে?? চলুন ব‍্যাখ‍্যা করি---

যদি কোরান ও ইসলামে আল্লাহ'র কথা বলা হয়, তাহলে আল্লাহ'র মূল নাম "আল্লাহ"। কিন্তু তার কিছু গুনবাচক নামও আছে। যেমন-রহমান, রহীম (দয়ালু , করুণাময়) ইত্যাদি। এভাবেই আল্লাহর 99 টা বা তারচেয়ে বেশি কিছু নাম আছে। কোরানে বলা হয়েছে-"সব উত্তম নামই তার"(20:8, 7:180, 59:24)।তার আরও একটা নাম আছে, আর তাহল- "খালিক"। "খালিক" আরবি শব্দ, এর বাংলা অর্থ হল- 1)সৃষ্টিকর্তা, 2) স্রষ্টা, 3) যাকে কেউ সৃষ্টি করেনি, 4) শূন্য থেকে সৃষ্টিকারি, 5) কোনও কিছু থেকে কোনও কিছু সৃষ্টিকারি।
এর মধ্যে 5 নং অর্থটি শুধুমাত্র মানুষের জন্য ব‍্যবহৃত হতে পারে। যেমন মানুষ "চেয়ার''-এর খালিক বা সৃষ্টি কারি। কারণ, গাছ থেকে কাঠ, আর কাঠ থেকে "চেয়ার"। অর্থাৎ কোনও কিছু থেকে কোনও কিছু সৃষ্টি কারি। তাই না??

এবার আল্লাহর প্রসঙ্গে আসি। "আল্লাহ'কে কে সৃষ্টি করেছে"?? এখন আল্লাহর একটা নাম খালিক, এবার উপরিউক্ত খালিক শব্দের 3 নং অর্থটা নিন। অর্থাৎ এখন তার প্রশ্নটার অর্থ দাঁড়ালো -"যাকে কেউ সৃষ্টি করেনি, তাকে কে সৃষ্টি করেছে"??
এখন দেখুন, তার প্রশ্নের উত্তর সে নিজেই দিয়েছে। তাই না??
তাই, যাকে কেউ সৃষ্টি করেনি, তাকে সৃষ্টি করবে কে?? এ বিষয়ে পবিত্র কোরানে বলে- "তিনি সমস্ত সৃষ্টির প্রথমে আছেন, সমস্ত ধ্বংসের পরেও থাকবেন"(সূরা হাদীদ : 3)- সুবহানআল্লাহ।
আশা করছি, অজানা বিষয় জেনেছেন। সুতরাং শেয়ার করে সবাইকে জানিয়ে দিন।

আর যদি এ ধরনের কঠিন কঠিন প্রশ্ন আপনাদের থেকে থাকে, তাহলে সেই প্রশ্ন গুলো আমার কাছে পাঠান। ইনশাআল্লাহ এভাবেই উত্তর দেওয়া হবে।
লেখক, হোসেন কুরানী।

আরো নতুন নতুন সিম অফার, টিপস ও নিউজ পেতে সাথেই থাকুন।
ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে সাইট শেয়ার করুন ।

Post a Comment

0 Comments