জেনে নিন পেট ফাঁপা সমস্যা দূরীকরণ কি কি করবেন

জেনে নিন পেট ফাঁপা সমস্যা দূরীকরণ কি কি করবেন 

জেনে নিন পেট ফাঁপা সমস্যা দূরীকরণ কি কি করবেন
জেনে নিন পেট ফাঁপা সমস্যা দূরীকরণ কি কি করবেন 



পেট ফাঁপা একটি বহুল পরিচিত সমস্যা। এ সমস্যার সম্মুখীন আমরা কম বেশি সবাই পড়ে থাকি। আমাদের খাদ্য জনিত সমস্যার কারণেই মূলত এই  এই সমস্যাটা হয়ে থাকে। চর্বি জাতীয় খাবার খেলে গ্যাস্ট্রিকের সমস্যায় ভুগতে হয় বেশির ভাগ মানুষের। এই তেল বা চর্বি জাতীয় খাবার বেশি খাওয়ার ফলে এবং পেটে খাবার হজমের সমস্যা থাকলে পেট ফাঁপা সৃষ্টি হয়। যা খুব বিরক্তকর সমস্যা। পেট ফাঁপা থেকে পেট ব্যথা হতে পারে।

এ সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য অনেকে ওষুধ সেবন করে। তবে এমন অনেক অবস্থায় পড়তে হয় যে তখন কোন ওষুধের ব্যবস্থা থাকে না। তাই আজ আপনাদের জানাবো কিভাবে ঘরোয়া উপায়ে পেট ফাঁপা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। 



1. আদা

আদা খাবার হজম করে এর ভূমিকা অনেক। বদহজমের থেকেই এ সমস্যায় পড়তে হয় । যদি নিয়মিত খাবারের শেষে এক টুকরো করে আদা খাওয়া হয় তাহলে দেখা যায় বদ হজম সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। আর পেট ফাঁপা থেকেও রক্ষা পাওয়া যায়। কেননা বদহজম থেকেই এ সমস্যার সৃষ্টি। এজন্য আদা কুচি কুচি করে কেটে লবণ মিশিয়ে খাওয়া যায়। তাছাড়া চায়ের সাথে মিশিয়ে চা পান করা যায়। এভাবে প্রতিদিন সকাল-বিকাল খেলেও অনেকটা উপকার হয়।

2. টমেটো

এ সমস্যাটি উপশম করতে টমেটো ব্যাপক কাজ করে। কেননা টমেটো রয়েছে পটাশিয়াম। শরীরকে এর সোডিয়ামের মাত্রা পরিমাণ কে নিয়ন্ত্রণ করে। সোডিয়ামের মাত্রা তারতম্য হলে এ সমস্যায় ভুগতে হয়। এ সমস্যাটিতে পড়লে টমেটো খেলে সোডিয়াম কে নিয়ন্ত্রণ করে এ থেকে মুক্তি দেয়।

3. শসা

আপনারা হয়তো খেয়াল করে দেখবেন যে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে সালাত যাবে শসা দিয়ে থাকে। এটা কেন দেয় সেটা অনেকেই জানে না। যে কারণে অনুষ্ঠানগুলোতে বেশিরভাগই চর্বি জাতীয় খাবারের পরিমাণ থাকে। যার ফলে গ্যাস্ট্রিক জনিত , বদ হজমের কারণ হতে পারে। শসা খেলে পেট ঠান্ডা থাকে। আর চর্বি কেটে যায় দ্রুত। তাই সালাদ হিসেবে শসা দেওয়া থাকে। আরে এসব কারণে পেটের চর্বি সহ গ্যাসের উপদ্রব থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

4. দই

দই খেলে অন্ত্রের উপকারী ব্যাকটেরিয়া গুলোকে বৃদ্ধি করে। যা আমাদের হজম শক্তি বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। ফলে পেটে গ্যাস হওয়ার সম্ভাবনা কমে যায় এবং পেট ফাঁপা হয় না।


5. পেঁপে

পেঁপেতে পাপায়া নামক এনজাইম থাকে যার শরীর হজম শক্তি বৃদ্ধি করে।

6. ঠান্ডা দুধ

ঠান্ডা দুধ খেলে গ্যাস্ট্রিক কে নিয়ন্ত্রণ করে এসেছে এসিডিটি থেকে মুক্তি দেয়। তাই এ সমস্যায় পড়লে ঠান্ডা দুধ পান করা ভালো।

7. কলা

কলা পেটের অতিরিক্ত সোডিয়াম দূর করতে সাহায্য করে। সোডিয়াম গ্যাসের সমস্যার সৃষ্টি করে। যার ফলে কলা খেলে সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায় ।

যদি বুঝতে পারেন যে উপরোক্ত পদ্ধতি অবলম্বন করে শিশুদের বা বয়স্কদের সমস্যা ঠিক হচ্ছে না তাহলে অবশ্যই দ্রুত ডাক্তারের সাথে যোগাযোগ করবেন। ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী সকল চিকিৎসা ও ঔষধ খাবেন।

আর অবশ্যই খেয়াল রাখবেন যেগুলো খাবার খেলে বদ হজম হওয়ার সম্ভাবনা থাকে সেগুলো খাবার একটু কম খাবেন। ভাল থাকুন সুস্থ থাকুন।

আরো নতুন নতুন সিম অফার, টিপস ও নিউজ পেতে সাথেই থাকুন।
ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে সাইট শেয়ার করুন ।



Tags: গ্যাস্ট্রিক কি,পেটে গ্যাস হলে কি করা উচিত,ছাগলের পেট ফাঁপা,গ্যাস্ট্রিক সমস্যা,পেটের গ্যাস কিভাবে দূর করব,পেটের গ্যাস,পেটের গ্যাস কমানোর উপায়,এসিডিটি হলে কি করব,পেট থেকে গ্যাস দূর করার সহজ উপায়,পেটের গ্যাস দূর করুন,গর্ভাবস্থায় গ্যাসের সমস্যা দূর করুন ৭টি ঘরোয়া উপায়ে,গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা,পেটের গ্যাস দূর,বেকারত্ব দূরীকরণে,পেটের গ্যাস বের করার উপায়,গ্যাসের সমস্যা থেকে মুক্তির উপায়,গর্ভকালে গ্যাসের সমস্যা,গর্ভবতীর গ্যাসের সমস্যা,গর্ভাবস্থায় গ্যাসের সমস্যা,গর্ভাবস্থায় গ্যাসের সমস্যা

Post a Comment

0 Comments