ATM Card Fraud -এটিএম কার্ড জালিয়াতি থেকে বাচার উপায় দেখে নিন কাজে লাগবে।

 আসসালামুআলাইকুম।

ও হিন্দু ভাইদের জানাই আদাব।

কেমন আছেন সবাই? 

আশা করি সবাই ভাল আছেন।আপনাদের দোয়াতে আমি ও অনেক ভাল আছি। আজকে কোন বিষয় নিয়ে আলোচনা করব।হয়তো টাইটেল দেখে ই বুঝে গেছেন।


বর্তমান যুগ হলো ডিজিটাল যুগ,এটিএম প্রায় সচরাচর

খুব ব্যাবহৃত হচ্ছে।তাই আমাদের সতর্কতার সহিত এটিএম কার্ড ব্যাবহার করা উচিৎ। আজকে আপনাদের মাঝে এমন কিছু টিপস শেয়ার করব,যে টিপসগুলো ফলো করলে আপনি এটিএম জালিয়াতির হাত থেকে বাচতে পারেন।

এটিএম কার্ডের অনেক সুবিধা আছে, আবার নিরাপত্তার সহিত না ব্যাবহার করলে অনেক সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়।তাই নিচের লেখা ফলো করলে আশা করি আপনাদের উপকার হবে।

কথা না বাড়িয়ে শুরু করা যাকঃ

১] আপনার এটিএম এর পিন নম্বর কোনভাবেই কারোর সাথেই শেয়ার করবেন না, সে আপনার যত প্রিয়জনই হোক না কেন।কখনো এ ধরনের ভুল কখনো করবেন না।

২] এটিএম পিন টাইপ করার সময় কিপ্যাড টিকে ভালো করে হাত দিয়ে ঢেকে রেখে টাইপ করুন, যাতে লুকিয়ে কেউ দেখে নিতে না পারে।
আশে পাশে লোকজন থাকলে সজাগ হয়ে পিন টাইপ করবেন।

৩] এটিএম এর পিন নম্বর কোথাও লিখে রাখবেন না । এতে আপনার এটিএম কার্ড জালিয়াতি হওয়ার সম্ভনা থাকে বেশি।

৪] এটিএম মেশিনে কার্ড ঢোকানোর আগে ভালো করে দেখেনিন,সেখানে অন্যকোনো মেশিন লাগানো নেই তো। কোনো কিছু সন্দেহজনক মনে হলেই এটিএম গার্ডের দৃষ্টি আকর্ষণ করুন।এবং এটিএম গার্ডকে অভহিত করুন।

৫] টাকা তোলার পর যতক্ষণ না এটিএম মেশিনের এর স্ক্রিন পুনরায় আগের অবস্থায় ফিরে আসে, ততক্ষন বেরুবেন না।

৬]
আপনার এটিএম কার্ডের নম্বর ও পিছনের সিভিভি কারোর সাথে শেয়ার করবেন না।
ভুলেও কাউকে কোনো ভাবে দেখাবেন না।

৭] কার্ড ব্লক করে দেওয়া হবে বা কার্ডের কেওয়াইসি করতে হবে তাই আপনার পিন নম্বরটি জানতে চেয়ে কোনো মেসেজ এলে কখনোই আপনার পিন বলবেন না।
বিভিন্ন প্রতারক তারা এ ধরনের প্রতারনা করতে ফাত পেতে বসে থাকে।তাই সতর্ক হোন।

৮] তার পর যদি আপনার মনে কোনো সন্দেহ থাকে এটিএম কার্ড নিয়ে, তাহলে ব্যাংক এ যোগাযোগ করুন

Post a Comment

0 Comments