আসসালামু আলাইকুম।আশা করি সবাই ভালো আছেন।আমিও ভালো আছি।

আমরা অনেকেই ফোনের সাথে যে default file manager/file viewer দেয় তা ব্যবহার করে সন্তুষ্ট নই।আমরা comfortable ধাচের এবং ফাস্ট স্পীডের ফাইল ম্যানেজার ব্যবহার করতে বেশি লাইক করি।

তবে সকল ফাইল ম্যানেজার এ আমরা সেরকম ফিল পাইনা।আজকে আমি আপনাদের জন্য নিয়ে এসেছি এমন এক ফাইল ম্যানেজমেন্ট এপ যা আপনাকে অনেক ফিচার দেবে এবং সাথে এই ৬৫০ টাকার এপ সম্পুর্ণ ফ্রি করে দিয়েছি যাতে আপনারা সকল ফিচার বিণামূল্যেই পান।গুগল প্লে স্টোর থেকে ডাউনলোড করলে আপনাকে ৬৫০ টাকা দিয়ে প্রো এপ আনলক করতে হতো।

আর আমি যে লিংক দিয়েছি সেখান থেকে আপনি ফ্রিতেই ডাউনলোড করে সব ফিচার ব্যবহার করতে পারবেন,যা গুগল প্লেস্টোর থেকে ডাউনলোড করলে আপনাকে কিনে ব্যবহার করতে হতো।আর বিরক্তিকর বিজ্ঞাপনের ঝামেলা তো আছেই।কিন্তু আমি যে এপ দিয়েছি তাতে এর কোনো ঝামেলাই নেই।



তো চলুন প্রথমে এপটির কিছু ফিচার জেনে আসা যাক।

  • ক্লাউড ইন্টিগ্রেশন সহ দ্রুত, সহজেই ব্যবহারযোগ্য এবং পূর্ণ-বৈশিষ্ট্যযুক্ত ফাইল ম্যানেজার অ্যাপ্লিকেশন।
  • ফাইল ম্যানেজার + অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসের জন্য সহজ এবং শক্তিশালী ফাইল এক্সপ্লোরার। এটি বিনামূল্যে, দ্রুত এবং পূর্ণ বৈশিষ্ট্যযুক্ত- এটির সাধারণ ইউআই এর কারণে এটি ব্যবহার করা অত্যন্ত সহজ।
  • ফাইল ম্যানেজার + এর সাহায্যে আপনি নিজের ডিভাইস, এনএএস (নেটওয়ার্ক-সংযুক্ত স্টোরেজ) এবং ক্লাউড স্টোরেজে আপনার ফাইল এবং ফোল্ডারগুলি সহজেই পরিচালনা করতে পারেন।
  • আপনি ফাইল ম্যানেজার + খোলার সাথে সাথেই আপনার ডিভাইসে কতগুলি ফাইল এবং অ্যাপ্লিকেশন রয়েছে তা এক নজরে খুঁজে পেতে পারেন।
  • এটি প্রতিটি ফাইল পরিচালনার ক্রিয়াকলাপগুলি (ওপেন, সার্চ, নেভিগেট ডিরেক্টরি, কপি এবং পেস্ট, কাট, ডিলেট, পুনর্নবীকরণ, সংকোচন, ডেকম্প্রেস, স্থানান্তর, ডাউনলোড, বুকমার্ক এবং সংগঠিত) সমর্থন করে। ফাইল ম্যানেজার প্লাস app সহ মিডিয়া ফাইল এবং বড় ফাইল ফর্ম্যাট সাপোর্ট করে।
  • প্রধান স্টোরেজ / এসডি কার্ড / ইউএসবি ওটিজি: আপনি আপনার অভ্যন্তরীণ স্টোরেজ এবং বাহ্যিক স্টোরেজ উভয় ক্ষেত্রেই সমস্ত ফাইল এবং ফোল্ডার পরিচালনা করতে পারেন।
  • ডাউনলোড / চিত্র / অডিও / ভিডিও /ফোল্ডার / নিউ ফাইল: আপনার ফাইল এবং ফোল্ডারগুলি স্বয়ংক্রিয়ভাবে তাদের ফাইলের ধরণ এবং বৈশিষ্ট্য অনুসারে বাছাই করা হয় যাতে আপনি যে ফাইলটি সন্ধান করছেন তা সহজেই খুঁজে পেতে পারেন।
  • অ্যাপস: আপনি আপনার স্থানীয় ডিভাইসে ইনস্টল থাকা সমস্ত অ্যাপ্লিকেশন দেখতে এবং পরিচালনা করতে পারেন।
  • ক্লাউড / রিমোট: আপনি আপনার ক্লাউড স্টোরেজ এবং NAS এবং FTP সার্ভারের মতো দূরবর্তী / ভাগ করা স্টোরেজ অ্যাক্সেস করতে পারেন। (মেঘ স্টোরেজ: গুগল ড্রাইভ ™, ওয়ানড্রাইভ, ড্রপবক্স, বক্স এবং ইয়ানডেক্স)
  • PC পিসি থেকে অ্যাক্সেস: আপনি এফটিপি (ফাইল ট্রান্সফার প্রোটোকল) ব্যবহার করে আপনার স্থানীয় অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসে ফাইল পরিচালনা করতে পিসি থেকে আপনার অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইস স্টোরেজ অ্যাক্সেস করতে পারেন।
  • স্টোরেজ বিশ্লেষণ: অকেজো ফাইলগুলি পরিষ্কার করার জন্য আপনি স্থানীয় স্টোরগুলি বিশ্লেষণ করতে পারেন। কোন ফাইলগুলি সবচেয়ে বেশি জায়গা নেয় তা আপনি খুঁজে পেতে পারেন।
  • অভ্যন্তরীণ চিত্র প্রদর্শক / অভ্যন্তরীণ সংগীত প্লেয়ার / অভ্যন্তরীণ পাঠ্য সম্পাদক: আপনি দ্রুত এবং আরও ভাল পারফরম্যান্সের জন্য বিল্ট-ইন ইউটিলিটিগুলি বেছে নিতে বেছে নিতে পারেন।

এর অনেক ফিচার আছে এমন।চলুন এর কিছু ব্যবহার সম্বন্ধে জানা যাক।
প্রথমে ঢুকেই স্টোরেজ পারমিশন দিয়ে দিন:

ফাইল সিলেক্ট করার ধাপ:
প্রথমে যে ফাইল সম্পাদনা করতে চান তার ওপর লং প্রেস করুন।মনে করি,আমরা নিচের মতো ফাইল সিলেক্ট করলাম:

দেখুন যেগুলো সিলেক্ট করেছি সেগুল সবুজ রঙ।এবার আপনি যা করতে চান তার জন্য নিচের অপশন রয়েছে।

এবার যা করতে চান তা সিলেক্ট করে নিন।ধরুন,আমরা এই ফাইল গুলি মুভ/কাট করতে চাই। এরজন্য আমাদের নিচের মতো সিলেক্ট করতে হবে।



এবার নিচের মতো আসবে:


এখন যেখানে ফাইলটা নিতে চান সে ফোল্ডারে গিয়ে নিচের Paste এ ক্লিক করুন।তাহলেই কাংক্ষিত ফাইল মুভ বা কাট হয়ে যাবে।

এবার More option এর ব্যবহার জানব।


More এ ক্লিক করার পর :


এখান থেকে আপনি ফাইলস Share,compress করতে পারবেন এবং সিলেক্ট করা ফাইলগুলোর properties জানতে পারবেন।

 আর হ্যা, এই ফাইল ম্যানেজার এপটির সবচেয়ে বেস্ট ফিচার আমার কাছে যা মনে হয়েছে তা হলো এর কপি/পেস্ট স্পীড। এটি যথাযথ কপি/মুভ স্পীড দেয় এবং অনেক ফাস্ট কাজ করে।

এর স্পীডের একটি উদাহরণ:



দেখুন ১৯ এমবিপিএস স্পীড দিয়েছে।আর Hide অপশন দিয়ে আপনি ব্যাকগ্রাউন্ডেও কপি/মুভ প্রোসেস অন রাখতে পারবেন।

এপটিতে ঢোকার পর:

দেখুন আপনি আপনার ফোনের downloaded files,images,audio files,video files,docments,apps,new/recent files সব একবারে দেখতে পারছেন।
আর নিচের অপশন গুলো সাধারণত ব্যবহৃত হয় ফাইল শেয়ারের জন্য।

সেটিংস এর কিছু ব্যবহার:
সেটিংস এ যাওয়ার ধাপ:








দেখুন বিভিন্ন সেটিংস দেখা যাচ্ছে।
  • Theme settings থেকে আপনি Light,Dark মুড চেঞ্জ করতে পারবেন।
  • Default apps থেকে আপনি আপনার ব্যবহৃত ফাইলগুলো কোন এপ ব্যবহার করে চালু হবে তা নির্ধারণ করতে পারবেন।
  • Built in apps এ যেগুলো টিক দেয়া থাকবে সেগুলো file manager+  এপ এর সাহায্যেই ওপেন হবে।
  • Storage is full অপশন থেকে আপনি কত % স্টোরেজ থাকা অবস্থায় storage is full মেসেজ আসবে তা নির্ধারণ করতে পারবেন।
  • Use recycle bean by default অপশন এ টিক দেয়া থাকলে আপনি ডিলেট করা ফাইল পুনরায় ফিরিয়ে আনতে পারবেন।আর টিক দেয়া না থাকলে ডিরেক্ট ফাইল ডিলেট হয়ে যাবে।
  • Detect USB connection এ টিক দেয়া থাকলে আপনি যদি আপনার ফোনে usb/pendrive connect করেন তাহলে এপটি automatic detect করতে পারবে।
  • show history তে  টিক দেয়া থাকলে সম্প্রতি ব্যবহার করা ফাইল দেখা যাবে।
  • show system storage এ টিক দিলে আপনি ফোনের root বা base এর স্টরেজ দেখতে পাবেন।
  • file size unit থেকে আপনি mb/kb/gb ইত্যাদি সিলেক্ট করতে পারবেন।তাহলে এপটি আপনাকে ওই এককে ফাইলের সাইজ প্রদর্শন করবে।
  • Show advance menus অপশন থেকে আপনি আপনার ইচ্ছামতো আপনি যা যা দেখতে চান বা চান না তা সিলেক্ট করতে পারবেন।
চলুন এপটির recycle bean এর ব্যবহার দেখা যাক।এর জন্য আপনাকে সেটিংস থেকে recycle bean option এ টিক দিতে হবে।

এবার যেকোনো ফাইল ডিলেট করলে তা নিচের মতো জমা হবে:

এখান থেকে Recycle bin এ প্রবেশ করুন


 দেখুন ডিলেট করা ফাইল দেখা যাচ্ছে।এখান থেকে যদি permanently delete করতে চান তাহলে empty তে ক্লিক করবেন।আর ফাইল ফিরিয়ে আনতে চাইলে More এ ক্লিক করবেন এবং ফাইল সিলেক্ট করে Restore অপশনে ক্লিক করবেন।

তাহলে ফাইল আপনি যেখান থেকে ডিলেট করেছেন ঠিক সেখানেই ফিরে যাবে।এবং আপনি পুনরায় আপনার ডিলেট করা ফাইল পেয়ে যাবেন।তবে জানিয়ে রাখি,এই recycle bin অপশন অন থাকলে কোনো ফাইল ডিলিট করার পর স্টরেজ খালি হবেনা।recycle bin এ থেকে যাবে।

পরে সেখান থেকে empty তে ক্লিক করলে ফাইল পারমানেন্টলী ডিলেট হয়ে যাবে।মুলত recycle bin ব্যবহার করা হয় ভুলক্রমে ডিলিট হওয়া ফাইলস ফিরিয়ে আনতে।

ডার্ক মুড:(প্রিমিয়াম ফিচার)



এবার ডাউনলোড করার পালা।

ডাউনলোড লিংক: https://drive.google.com/file/d/1XEh_z09WndoBTi3NapWfor8LBw5cVzaZ/view?usp=drivesdk

এখান থেকে ডাউনলোড করে ইনস্টল করে নিন।

তো আজকে এই পর্যন্তই।সবাই ভালো থাকবেন।সুস্থ থাকবেন।আল্লাহ হাফেজ।

Post a Comment

Previous Post Next Post