How to Marry A Girl maintaining Sunnah মেয়েদের ৪ টি বিষয় দেখে বিয়ে করুন [ রাসুল (সঃ)এর উপদেশ ]

আসসালামু আলাইকুম।আশা করি সবাই ভালো আছেন।আমিও ভালো আছি।

আজকে আমি আপনাদের মাঝে একটি ইসলামিক আলোচনা নিয়ে এসেছি। তা হলো মেয়েদের যে ৪ টি বিষয় দেখে বিয়ে করা সুন্নত এবং সাথে আরো কিছু প্রাসংগিক আলোচনা রয়েছে।

ভাইদের উদ্দেশ্য বলছি বিয়ে করার আগে যাচাই-বাছাই বিয়ে করা সুন্নত।কেননা আপনি আপনার স্ত্রী বাছাই করছেন না আপনি আপনার  সন্তানের মা ও বাছাই করছেন। 

সুতরাং  আপনাকে যাচাই-বাছাই করে বিয়ে করতে হবে।কারন যাচাই-বাছাই করে বিয়ে করা  গুরুত্বপূর্ণ একটা কাজ।অনেকে হয়তো  বলবেন আল্লাহ যা তকদিরে লিখেছেন সেটাই হবে।সেটা চাইলে ও কেউ পরিবর্তন করতে পারবে না।



 তবে রাসুল (সঃ) এর সুন্নাহ অনুসরণ করাও জরুরি। রাসুল (সঃ) ও বিয়ে করেছেন এ চারটি বিষয় দেখে। রাসুলুল্লাহ সাঃ খাদিজাকে সম্পদ ও বংশ বনিয়াদের জন্য বিয়ে করেন।   কনে বাছাই করবেন কিভাবে? এ সম্পর্কে কুরআন-হাদিস কি বলে? 



কোরআনে বলা হয়েছে, ‘তোমরা বিয়ে করো সেই স্ত্রীলোককে, যাদের তোমাদের ভালো লাগে।’ (সুরা নিসা, আয়াত : ৩)



হজরত মুগিরা ইবনে শুবা (রা.) বলেন, আমি জনৈক নারীকে বিয়ের প্রস্তাব করলাম। রাসূল (সা.) আমাকে বললেন, ‘তুমি কি তাকে দেখেছ? আমি বললাম, না। তিনি বললেন, তাকে দেখে নাও। কেননা এতে তোমাদের উভয়ের মধ্যে ভালোবাসা জন্মাবে।’ (মিশকাতুল মাসাবিহ, হাদিস : ৩১০৭)



হাদিসে বর্নিত হয়েছে  ৪ বিষয় যাচাই করে বিয়ে করতে হয়।সেক্ষেত্রে আল্লাহর রাসুল (সঃ)বলেছেন ৪ জিনিস দেখে বিয়ে করতে হয়। 


১.সম্পদের জন্য

২.বংশ-বেনিয়াদের জন্য

৩.সৌন্দর্যের জন্য

৪.দীন-দারিতার জন্য। 

 (সহিহ বুখারি, হাদিস : ৫০৯০)



এর মধ্যে ধার্মিকতাকে প্রধান্য দেওয়া হয়েছে।রাসুল সঃ বলেছেন বিয়ে জন্য দীন দার মেয়েকে বাচাই করা উত্তম। যদি সে কালো ও হয়।দরিদ্র ও হয় তাতে কোনো সমস্যা নেই। উক্ত চারটি গুনাবলির মধ্যে  ৩ টি যদি  অনুপস্থিত থাকে। অর্থাৎ দীনদার হলেই হবে।

 সুতরাং মুমিন মুসলমানগণ ভাইয়েদের জন্য উত্তম জিবন  সঙ্গী নির্বাচন করা সুন্নত ও পরকালে সফলতার জন্য অতি গুরুত্বপূর্ণ একটা কাজ।




তাই আসুন আমরা সকলে নবি(সা:) কে অনুসরণ করে তাঁর হাদিস অনুযায়ী উক্ত বিষয় সমূহ বিবেচনা করে আমল করি।

আল্লাহ আমাদের সকলকে তৌফিক দান করুন।আমীন।


Post a Comment

0 Comments