Top 5 Bangladeshi Movie ২০২১ সালের সেরা ৫ টি বাংলাদেশি মুভির নাম এবং রিভিউ জেনে নিন।

 আসসালামু আলাইকুম।আশা করি সবাই ভালো আছেন।আমিও ভাল আছি।

আজকে আমি সেরা ৫ বাংলাদেশি মুভি রিভিউ নিয়ে এসেছি আপনাদের জন্য।সচরাচর বাংলাদেশের মুভির মান অতটা ভালো নয়।সস্তা ডায়লগ আর সিনেমাটোগ্রাফি দিয়ে পরাপরই বাংলাদেশ ফ্লপ মুভি বানিয়ে যাচ্ছে, যা সিনেমা হলে মুক্তি পেলেও imdb তে জায়গা করে নিতে পারেনি।

তবুও এদেশের কিছু সিনেমা নিয়ে ভাবা মানুষ বরাবরের মতোই কিছু ভাল মুভি উপহার দিয়ে চলছে বাংলাদেশ কে।আজকে এমনই ৫ টি বাংলাদেশি মুভির লিস্ট ও হালকা রিভিউ নিয়ে এসেছি।তো চলুন শুরু করা যাক।



1.Janowar: The Tragic Truth

Imdb: 8.1/10

Personal:10/10

Cast- Taskeen Rahman, Rashed Mamun Apu and others.

এক নির্মম সত্য ঘটনাকে কেন্দ্র করে নির্মাণ করা হয়েছে মুভিটি। রাতে দেখেছি, এখনো কষ্টে বুকটা ফেটে যাচ্ছে, ছোট্ট হাওয়াবিন আর তার মা, আপু ও ভাইটার আর্তনাদ কানে ভাসছে। আসলে, অনেকদিন পর একটা সিনেমা আমাকে এতটা প্রভাবিত করেছে, তাও আবার বাংলাদেশী কন্টেন্ট! সবার অভিনয় এতই দূর্দান্ত ছিল যে মনে হচ্ছিল আসল ঘটনাটাই দেখছি। মুভির শেষে যখন ভিক্টিমদের আসল ছবিগুলো দেখলাম, তখন অন্তরে কান্না শুরু হয়ে গেল। আসলে আমি অনেক নরম হৃদয়ের মানুষ, এজন্য এত নির্মম একটা উপস্থাপনাকে একদমই সহ্য করতে পারিনি। কী হিংস্র, নির্মমভাবে উপস্থাপন করেছেন পরিচালক রায়হান রাফি!মুভি শেষ করে যখুনি ঘুমোনোর জন্য চোখের পাতা বন্ধ করি, তখুনি ভেসে ওঠে তাদের ছবি। আহ! মুভিটাই যতি এত নির্মম হয়, বাস্তবে তারা কতটুকু নির্মমতার শিকার হয়েছিল! এটা ভেবেই ঘুম আসছিল না। যাইহোক, মানুষরূপি এই জানোয়ারদের কিছুদিনের মধ্যেই ধরে ফেলে পুলিশ। কিন্তু ধরলে কী হবে! এইযে গেলো চারটা প্রাণ, একটা পরিবার, কত স্বপ্ন, কত ভালোবাসায় ঘেরা সংসার, সেটা কি ফিরে পাওয়া যাবে? তবুও তো, আর কোনো পরিবারের সাথে এধরণের জানোয়াররা যাতে এরকম কিছু না করতে পারে, সেজন্য আমাদের সবাইকেই সচেতন হতে হবে, অনেক অনেক সচেতন হতে হবে। আবারো পরিচালক রায়হান রাফি আর সকল অভিনয়শিল্পীদের অনেক অনেক ধন্যবাদ এত সুন্দর একটা উপস্থাপনার জন্য। সত্যিই গর্ব হচ্ছে, আমাদের দেশেও এখন দারুণ মানের সিনেমা তৈরী হচ্ছে। এই মুভি দেখে শুধু কষ্টই পাইনি, সচেতনও হয়েছি। যারা এখনো দেখেননি, তারা এখুনি এই অসাধারণ বাংলাদেশী ওয়েব ফিল্মটি দেখে ফেলুন। প্লে স্টোরে গিয়ে Cinematic App টি নামিয়ে মাত্র ২ টাকা দিয়ে সাবস্ক্রিপশন করুন, আর দেখে ফেলুন চমৎকার এই ফিল্মটি! আপনিও আমার মতো ফিল্মটি দেখে কষ্টও পাবেন, আবার সচেতনও হবেন।


2.Aynabaji

Genre:Thriller

IMDB Rating:9.1

Personal Rating:9.5

Cast: Chonchol Chowdhury etc

বাংলাদেশের তৈরি করা মাস্টারপিস মুভি গুলোর মধ্যে আয়নাবাজি অন্যতম মুভিটা দেখার পর এখনো মাথা ঘুরছে এ কি মুভি দেখলাম!আমি মুভিটার রেটিং হাজার দিলেও কম হয়ে যাবে। কিছু কিছু মুভি আছে সেগুলোর রিভিউ দিয়ে শেষ করা যায় না বাংলাদেশের কোন মুভি হিসেবে আইএমডিবি টপ লিস্টে থাকার মতো মুভি আয়নাবাজি।বাংলাদেশের মুভি ইন্ডাস্ট্রিতে এত সাসপেন্স শহর সহ মুভি আগে তৈরি হয়েছে কিনা আমার জানা নেই ।মুভি মেকিং গল্প স্টরি টেলিং অভিনয় ব্যাকগ্রাউন্ড মিউজিক কালার গ্রেডিং ডিরেকশন সিনেমাটোগ্রাফি সবকিছুই অসাধারণ লেগেছে।এই সবকিছুর কমপ্লিট প্যাকেজ হচ্ছে আয়নাবাজি।চঞ্চল চৌধুরী তাঁর অসাধারণ অভিনয় দিয়ে মুভিটা আরো মনমুগ্ধকর করে তুলেছে একসাথে এত চরিত্রে নিখুঁতভাবে অভিনয় করা এরকম অসম্ভব ব্যাপার কে চঞ্চল চৌধুরী খুব সহজেই উপস্থাপন করেছেন।অমিতাভ রেজা চৌধুরী তাকে নিয়ে কিছুই বলার নেই ।এরকম মাস্টারপিস বানানোর জন্য তাকে অসংখ্য ধন্যবাদ দেওয়া ছাড়া আর কি বা বলার থাকে বাংলাদেশের ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিকে উচ্চপর্যায়ে নেওয়ার জন্য এরকম পরিচালক এই আমাদের দরকার।এই মুভি শুধু চোখ দিয়ে দেখলে হবে না মন দিয়ে বুঝতে হবে তার সাথে ব্রেইন খাটাতে হবে।আয়নাবাজি মুভি কেন এত সফলতা পেয়েছিল?এর কারণ মুভি স্টোরি যেমন ভাল ছিল, তেমনি মুভির সাথে কিছু মেসেজ দেওয়া হয়েছিল এছাড়া ছোটখাটো অনেক মেসেজ দেওয়া হয়েছে যেমন একজন সচেতন নাগরিকের দায়িত্ব পুলিশের দায়িত্ব সাংবাদিকের দায়িত্ব ইত্যাদি।মুভিতে ঢাকা শহরকে যত পজেটিভ ভাবে দেখানো হয়েছে এরকম কেউ আগে পেরেছে এবং ভবিষ্যতে পারবে বলে মনে হয় না ।মুভির গল্প নিয়ে কিছু বলছে না কারণ বলার প্রয়োজন হচ্ছে না । সরাসরি ডাউনলোড করে মুভিটা দেখে নেন, দৃষ্টিভঙ্গি আপনাদের উপর ছেড়ে দিলাম।বাংলাদেশের মুভি বলে ছোট করে দেখার কিছু নেই হয়তো এটা হলিউড লেভেলের মুভি না কিন্তু মুভিতে যে পরিমাণ সাসপেন্স আছে সেটা দেখে আপনি অবাক না হয়ে পারবেন না ।


3.Daruchini Dwip

Genre : Comedy,Drama, Romance

Cast: Riaj,Mosharraf karim,Emon etc.

IMDb : 7.8/10

Mine : 10/10

                  " মন চায় মন চায়

                   যেখানে চোখ যায়

                   সেখানে যাব হারিয়ে " 

মনে আছে গান টা ? নিশ্চয়ই মনে আছে । আগে কোন টুরে গেলে এই গান ছাড়া যেন টুরই জমতো না । যেমনি সুন্দর গানের কথা , তেমনি সুন্দর ভোকাল । হ্যা , ঠিক ধরেছেন , দারুচিনি দ্বীপ মুভির অসাধারণ গানটির কথাই বলছি । এই গানটার মতোই মুভিটাও এক কথায় অসাধারণ । নন্দিত কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের উপন্যাস অবলম্বনে তৈরি মুভি এটি।যেমন ইউনিক গল্প , তেমনি অসাধারণ অভিনয়। তবে গল্পটা ঠিক যেন চেনা একটা গল্প , আমাদের আশেপাশের ই গল্প যেন বড় পর্দায় ফুটিয়ে তুলেছেন নির্মাতা তৌকির আহমেদ । মুভি দেখতে দেখতে কখনো হাসবেন , কখনো খুব রাগ হবে , কখনো খুব করে ভালোবাসতে ইচ্ছে করবে , তো কখনো চোখ ভিজে আসবে । এক কথায় হৃদয় ছোঁয়া ।শুভ্র (রিয়াজ) আর তার বন্ধুরা ঠিক করে তারা একসাথে দূরে কোথাও ঘুরতে যাবে । একেক জন একেক জায়গার কথা বলে । সব শেষে ঠিক হয় তারা দারুচিনি দ্বীপ মানে সেইন্ট মার্টিন যাবে । তারা মোটামুটি খরচ থেকে শুরু করে যাওয়ার সব পরিকল্পনা করে ফেলে , এমনকি টুরের থিম সং ও ঠিক হয়ে যায় । তো এর পরেই একে একে ঝামেলার শুরু । কোন বন্ধুর টাকার সমস্যা , তো কারো ফ্যামিলি একা ছাড়বে না , তো কারো বিয়ে ঠিক হয়ে আছে । সব মিলিয়ে অনিশ্চিত এক টুর । শেষ পর্যন্ত কি তারা যেতে পেরেছিল স্বপ্নের দারুচিনি দ্বীপে ? জানতে হলে দেখতেই হবে অসাধারণ মুভিটি ।অভিনয়ের কথায় আসলে বলতে হয় , সবাই অসাধারণ অভিনয় করেছে । এই মুভিতে রয়েছে এক ঝাঁক তারকার উপস্থিতি । লাক্স তারকা থেকে শুরু করে কে নেই । রিয়াজ , ইমন , মোশাররফ করিম , চ্যালেঞ্জার , মম , বিন্দু সবাই আছে মুভিতে । সব মিলিয়ে জমজমাট এক মুভি । তৌকির আহমেদ ডিরেক্টর হিসেবে মুনশিয়ানা দেখিয়েছেন । সব মিলিয়ে ২ ঘন্টা ১০ মিনিটের উপভোগ্য এক মুভি । 






4.Dhaka Attack

Genre : Action,  Thriller

IMDb : 7.8/10

Personal : 9.0/10

Cast: Arifin shuvo,Mahia Mahi etc


     " আরে টিকাটুলির মোড়ে একটা হল রয়েছে
        হলে নাকি এয়ার কন্ডিশন রয়েছে " 

মনে পড়ে গান টা ? এতক্ষণে নিশ্চয়ই মনে পড়ে গেছে । হ্যা ঠিক ধরেছেন , বলছি বাংলাদেশের মুভি ইতিহাসের অন্যতম ব্যবসা সফল ছবি ঢাকা অ্যাটাক এর কথা । যেই মুভির টিকেট নিয়ে মুভি লাভার্সদের মধ্যে কম কাড়াকাড়ি হয়নি । সত্যি বলতে আমি নিজেও মুভিটা হলে গিয়ে দেখেছিলাম বহু কষ্টে টিকিট পেয়ে । তবে মুভি দেখার পর বলতে বাধ্য হয়েছিলাম পয়সা উসুল । বাংলাদেশের মুভি বলতেই যারা নাক সিঁটকায় তাদেরকে নতুন করে জাত চিনিয়েছে দীপঙ্কর দীপনের ঢাকা অ্যাটাক মুভিটি । ইউনিক কাহিনী , অস্থির সিনেমাটোগ্রাফি , দারুন মিউজিক , কিছু অনবদ্য অভিনয় সব মিলিয়ে জমজমাট এক মুভি ঢাকা অ্যাটাক ।অজ্ঞাতনামা কিছু সন্ত্রাসী হঠাৎ ঢাকার এক কেমিক্যাল ফ্যাক্টরিতে হামলা চালিয়ে কিছু কেমিক্যাল ছিনিয়ে নিয়ে যায় । আর সেখানে কর্মরত কিছু মানুষকে হত্যা করে । এই ঘটনার পরপরই ঢাকার পুলিশ নড়েচড়ে বসে । কিন্তু তারা কিছু বুঝে ওঠার আগেই এক স্কুল বাসে বোমা বিস্ফোরণ ঘটে । আর এতে অনেক হতাহত হয় । আর তারপরই এসি আবিদকে (আরেফিন শুভ) বোম্ব ডিস্পোজাল ইউনিটের প্রধান আর আশফাককে (এবিএম সুমন) সোয়াত টিমের লিডার করে এর রহস্য উদঘাটনের দায়িত্ব দেওয়া হয় । একটি নামকরা চ্যানেলের সাংবাদিক চৈতিও (মাহিয়া মাহী) তাদের সাথে যুক্ত হয়ে যায় । কিন্তু দিন যত এগিয়ে যায় সবকিছু আরো ঘোলাটে হতে থাকে । রিমোট চালিত আরেক বোমা বিস্ফোরণে পুলিশেরই এক সদস্য গুরুতর আহত হয় । তারা বুঝতে পারে এ কোন সাধারণ মানুষের কাজ নয় । নিশ্চয়ই কোন মাস্টারমাইন্ড আছে । আসলেই কি তাই ? জানতে হলে দেখতে হবে ঢাকা অ্যাটাক মুভিটি । শেষ দিকে চমক আছে।এই মুভির এক্স ফ্যাক্টর হচ্ছে মুভির ভিলেন হিসেবে তাসকিন রহমানের পারফেক্ট এন্ট্রি বাংলাদেশের মুভি ইন্ডাস্ট্রিতে । মুভিতে তার জ্বলজ্বলে চোখের অনবদ্য অভিনয় সবার নজর কাড়তে বাধ্য । এছাড়া সোয়াত টিমের লিডার হিসেবে এবিএম সুমন সেরা পারফর্মেন্স করেছে । আরেফিন শুভ সবসময়ের মতো পারফেক্ট ছিল । শুধু মাহীর ন্যাকামিটা ইকটু অড ছিল এই যা । মুভির সিনেমাটোগ্রাফির প্রশংসা করতেই হয় । ড্রোন শটগুলা ভালো ছিল । গানগুলোও সিচুয়েশন অনুযায়ী পারফেক্ট ছিল। সব মিলিয়ে ২.৩০ ঘন্টার এক পারফেক্ট ফ্যামিলি প্যাকেজ মুভি ঢাকা অ্যাটাক ।না দেখে থাকলে দেরি না করে আজই দেখে ফেলুন নিজের দেশের একশন থ্রিলার মুভি ঢাকা অ্যাটাক । আশা করি ভালো লাগবে । ওহহ সামনে আসছে নতুন আরেক চমক মিশন এক্সট্রিম মুভি । ট্রেইলার তো জোস ছিল । এইটার অপেক্ষায় আছি । 



5.Oggatonama

Genre : Drama

IMDB: 9/10

Personal Rating : 9/10

Cast :  Abul Hayat, Shahiduzzaman Selim, Fazlur Rahman Babu, Mosharraf Karim, Shatabdi Wadud, Nipun......

প্রথমেই অভিনয় শিল্পীদের কথা না বললেই নয়, পরিচালক থেকে শুরু করে সকল আর্টিস্ট এর অসামান্য পারফরম্যান্স এর সুফল হল অজ্ঞাতনামা। আমার কাছে ফজলুর রহমান বাবু, মোশাররফ করিম, শতাব্দী ওয়াদুদ ও শহিদুজ্জামান সেলিম এর অভিনয় দুর্দান্ত লেগেছে। বাকিরাও কম কিসে, সবাই সবার জায়গায় ফিট।রমজান আলী(শহিদুজ্জামান সেলিম) পেশায় একজন আদম ব্যবসায়ী।অল্প টাকায় গলাকাটা পাসপোর্ট বিক্রি করে গ্রামের দরিদ্র লোকজনের কাছে।এমনই এক গলাকাটা পাসপোর্ট নিয়ে মিডেলইস্ট এ পাড়ি জমায় কেফায়েত উদ্দিন প্রামাণিক(ফজলুর রহমান বাবু) এর ছেলে আছির উদ্দিন প্রামাণিক। এক দূর্ঘটনায় আছির উদ্দিন প্রামাণিক মৃত্যুবরণ করার পর তার ঠিকানা খোঁজার উপর ভিত্তি করেই মুলত এই মুভিটি নির্মিত। 
একজন মানুষের ঠিকানাই তার জীবনের সব।অর্থ উপার্জনের জন্য নিজের ঠিকানা পরিবর্তন করে ভিন্ন দেশে মৃত্যুবরণ করার পর লাশ হয়ে দেশে ফিরে আসার জটিলতা এবং মৃত্যুর পর একজন সন্তানের নিজ পরিচয়ে পরিচিতি পাবার জন্য একজন বাবার আর্তনাদ এই মুভিতে ফুটে উঠেছে।অবসর সময়কে কাজে লাগাতে পারেন ভিন্নধর্মী এই মুভিটি দেখে। আশা করি ভাল লাগবে।


তো আজকে এই পর্যন্তই।সবাই ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন।আল্লাহ হাফেজ।


Post a Comment

0 Comments